সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:২১ পূর্বাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি
ভর্তি চলিতেছ রৌফন রেডিয়ান্ট স্কুলে প্লে গ্রুপ থেকে শুরু। চুলকাটি বাজার, (রুটস বাংলাদেশ) বনিকপাড়া রোড, বাগেরহাট।
সংবাদ শিরোনাম :
নয়ন স্মৃতি নাইট শর্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সৈয়দপুর চ্যাম্পিয়ন আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা পেল র‌্যাবের ঈদ উপহার বাগেরহাটে দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন শেখ তন্ময় এমপি বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে মোংলায় মানববন্ধন বর্ণাঢ্য আয়োজনে রামপালে জাতীয় ভোটার দিবস পালন রামপালে স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করেছে কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন পশুর চ্যানেলে তলা ফেটে দুর্ঘটনাকবলীত কার্গো জাহাজটি এখও ঝুকি মুক্ত নয়, চলছে কয়লা অপসারণ মোংলায় কয়লা নিয়ে পশুর নদীতে কার্গো ডুবি, ১১ নাবিক জীবিত উদ্ধার মোংলা বন্দরের সিবিএ’র কর্মচারী সঘের সাবেক সাঃ সম্পাদক এস এম ফিরোজ সহ ৩ জনের সদস্য পদ বাতিল
করোনাভাইরাস এন্টিবডি পরীক্ষায় বিস্ময়কর ফল

করোনাভাইরাস এন্টিবডি পরীক্ষায় বিস্ময়কর ফল

চুলকাঠি ডেস্ক : মাত্র বিশ মিনিটে মিলবে করোনা ভাইরাসের এন্টিবডি পরীক্ষার ফল। এমন একটি প্রযুক্তি তৈরি করেছেন বৃটিশ বিজ্ঞানীরা। প্রথমবারেই তারা সরকারি এই পরীক্ষায় প্রতিশ্রুত ইতিবাচক ফল পেয়েছেন। এ পরীক্ষায় আঙ্গুলের অগ্রভাগ সামান্য ছিদ্র করে সেখান থেকে রক্ত নিয়ে পরীক্ষা করা হয়। ডেইলি টেলিগ্রাফ বলেছে, এক্ষেত্রে এন্টিবডি টেস্ট শতকরা ৯৮.৬ ভাগ যথার্থ ফল দিয়েছে। বৃটিশ মন্ত্রীরা এখন লাখ লাখ এই এবিসি-১৯ কিট বিতরণের পরিকল্পনা করছেন। এই কিট বা পরীক্ষা উদ্ভাবন করেছে ইউকে র‌্যাপিড টেস্ট কনসোর্টিয়াম। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি এবং আবিঙ্গডন হেলথের মতো শীর্ষ স্থানীয় ডায়াগনস্টিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যকার অংশীদারিত্বে এই পরীক্ষা পদ্ধতি আবিষ্কার করা হয়েছে।বর্তমানে বৃটেনে যে পদ্ধতিতে এন্টিবডি পরীক্ষা করা হয় তা বেশ সময়সাপেক্ষ। রক্তের নমুনা গবেষণাগারে পাঠানো পর্যন্ত অনেক সময় লাগে। এক্ষেত্রে সর্বশেষ এই পদ্ধতি এই প্রক্রিয়াকে উল্লেখযোগ্য গতি বৃদ্ধি করবে এবং অধিক হারে বৃটিশ ঘরে বসেই এই পরীক্ষা করতে পারবেন। এর উৎপাদনকারীরা রেগুলেটরি অনুমোদনের জন্য অপেক্ষা করছে। অন্যদিকে বিপুল পরিমাণ এই পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। সরকার আশা করছে বছর শেষ হয়ে যাওয়ার আগেই কোভিড-১৯ স্ক্রিনিং কর্মসূচিতে গণহারে পরীক্ষা করার এক বিস্ময়কর পথ রচনা হবে এতে। এই এন্টিবডি পরীক্ষা কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন স্যার জন বেল। তিনি বলেছেন, এই দ্রুতগতির পরীক্ষা দৃশ্যত এক সত্যিকার বিস্ময়। এতে দেখা যাচ্ছে এ পরীক্ষা আমরা নিজেরাই করতে পারবো। তবে বিশেষজ্ঞরা বার বার সতর্কতা দিচ্ছেন। তারা বলছেন, একটি পজেটিভ এন্টিবডি টেস্ট মানেই একজন ব্যক্তি এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধী তার পক্ষে কোনো প্রমাণ নেই।যদিও আশা করা হচ্ছে এই পরীক্ষা লাখ লাখ মানুষের কাছে পৌঁছে দেয়া, তবু বৃটেনের জাতীয় স্বাস্থ্যসেবার টেস্ট এন্ড ট্রেস-এর প্রধান দিদো হার্ডিং বলেছেন, ব্যাপকভিত্তিতে এই এন্টিবডি পরীক্ষা তাৎক্ষণিকভাবে চালু করার পরিকল্পনা নেই। প্রথম দফায় এটা বিতরণ করা হবে স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছে। তারপর এটা জনগণের জন্য দেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

  1. © স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers