রবিবার, ২২ মে ২০২২, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ

আমাদের চুলকাঠি ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন chulkati24@gmail.com এই ই-মেইলে ।

শিরোনাম :
২১ মে রামপালের ডাকরা গণহত্যা দিবসে স্মৃতিচারণ ও মোমবাতি প্রজ্বলন  “আসন্ন কমিটি গঠন করার লক্ষে” ফকিরহাট থানা বিএনপি’র একাংশের মতবিনিময় বাগেরহাটে আন্তর্জাতিক রেটিং দাবা প্রতিযোগিতার উদ্বোধন বাগেরহাটে তাঁতী লীগের পরিচিতি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে শ্রমিকলীগে ও সেচ্ছাসেবকলীগের নেতৃবৃন্দের বিরুদ্বে সাংগঠনিক ব্যাবস্থার সিন্ধান্ত ফকিরহাটে ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী অনুষ্ঠিত ফকিরহাটে ভ‚মি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী অনুষ্ঠিত প্রয়াত সাংবাদিক পংকজ কর্মকার এর ৩য় মূত্যুবার্ষিকী পালিত বাগেরহাটে জোয়ারের পানির চাপে তলিয়ে গেছে বসত বাড়ি ও মৎস্য ঘের বেতাগায় পানি ব্যবস্থাপনা সমিতির ত্রিপক্ষীয় বাস্তবায়ন চুক্তি স্বাক্ষর
কয়েকশ’ বর্গকিলোমিটার এলাকায় ঢুকতে পারছে না ভারতীয় সেনারা

কয়েকশ’ বর্গকিলোমিটার এলাকায় ঢুকতে পারছে না ভারতীয় সেনারা

নিজস্ব ডেস্ক  :   লাদাখের গালওয়ান উপত্যকার কাছে আরেকটি এলাকা চীনের দখলে যাওয়ায় কয়েকশ’ বর্গকিলোমিটার এলাকায় ভারতীয় সেনাদের প্রবেশ ও টহল বন্ধ রয়েছে।শনিবার ভারতের পক্ষ থেকে চীনা বাহিনীর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলা হয়, লাদাখের পেট্রোলিং পয়েন্ট (পিপি) ১৪-এর কাছে ওই এলাকা দখলে নিয়েছে চীনা সেনারা। তবে এই এলাকায় এখনও কোনো অবকাঠামো তৈরি করেনি। ভারতীয় সেনা সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানায় আনন্দবাজার পত্রিকা।খবরে বলা হয়, লাদাখের কাছেই পয়েন্ট ১৪-সহ গোটা এলাকায় সেনার উপস্থিতি জোরদার করেছে চীন। এর ফলে পেট্রোলিং পয়েন্ট ১০, ১১, ১১-এ, ১২ এবং ১৩-এ পৌঁছাতে পারছে না ভারতীয় সেনারা।গত ১৫ জুন গালওয়ান উপত্যকায় পিপি-১৪-এ চীনা সেনা অবকাঠামো তৈরির চেষ্টা করায় দুপক্ষে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটে। এতে ভারতের ২০ সেনা নিহত হয়। গুরুতর জখম হয় আরও ৭৬ জন ভারতীয় সেনা।ওই ঘটনার পর চীনা বাহিনী পেট্রোলিং পয়েন্ট ১৪ থেকে সরে যায়। কিন্তু গত ১০ দিনের মধ্যে সেখানে ফের ঘাঁটি গেড়েছে চীনা সেনা।আননন্দবাজার পত্রিকা আরও জানায়, বর্তমানে পিপি-১৪ এর কাছে বিস্তীর্ণ এলাকা দখল করে ফলেছে চীনারা। যার মধ্যে পড়েছে বটল-নেক পয়েন্ট বা ওয়াই জংশন পেট্রোলিং পয়েন্ট, ভারতের মধ্যে হলেও যা বর্তমানে চীনের দখলে।ওই ওয়াই জংশন পয়েন্ট থেকেই পিপি ১০, ১১, ১১এ, ১২ ও ১৩ যাওয়ার রাস্তা। কিন্তু চীনা সেনারা বসে থাকায় আপাতত সেই এলাকায় পৌঁছাতে পারছে না ভারতীয় সেনা। এর ফলে কয়েকশ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় নজরদারি বন্ধ রাখতে হয়েছে ভারতকে।ওয়াই জংশন পয়েন্টটি থেকে লাদাখের ব্রুটসে ভারতীয় সেনার ছাউনি ৭ কিলোমিটার দূরে এবং ওই শহরের ওপর দিয়ে চলে গেছে দারবুক-শাইয়োক-দৌলত বেগ ওল্ডি সড়ক, যা চীনের মাথাব্যথার কারণ।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers