বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:২৯ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
শেখ হেলাল উদ্দীন সরকারী কলেজে পাঠদানের উদ্বোধন ও বৃত্তি প্রদান রামপালে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত চন্ডিতলা স্কুলের শিক্ষার্থীরা পেল পোশাক বাগেরহাটে প্রতিবন্ধিকে মারপিটের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন রামপালে কাদিরখোল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪১ তম বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে “উগ্রবাদ প্রতিরোধে ছাত্র, গণমাধ্যমকর্মী ও সুশীল সমাজের ভূমিকা” শীর্ষক দিনব্যাপি সেমিনার অনুষ্ঠিত ফ্রী ফায়ার গেম নিয়ে দ্বন্দ, ভ্যান চালক বন্ধুকে হত্যা করে গ্যারেজ মেকানিক বাগেরহাটে সন্ত্রাস দমন ও আন্তর্জাতিক অপরাধ প্রতিরোধে দিনব্যাপী সেমিনার আওয়ামী লীগ সরকারের নেতৃত্বে দেশে লুটপাটের মহোৎসব চলছে সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে জেলে আহত হওয়ার দু’দিন লোকালয়ে বাঘের গর্জন নির্বাহী প্রকৌশলীর উপর হামলার প্রতিবাদে ফকিরহাটে মানববন্ধন
নকল প্রসাধনী পণ্য তৈরির অবৈধ কারখানা ছিল সাইফুদ্দিনের

নকল প্রসাধনী পণ্য তৈরির অবৈধ কারখানা ছিল সাইফুদ্দিনের

চায়না থেকে মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে ৩২ ধরনের প্রসাধনী পণ্যের খালি বোতল আমদানি করতো তাকওয়া এন্টারপ্রাইজের মালিক সাইফুদ্দিন চৌধুরী। তিনি পুরান ঢাকার চকবাজারের মৌলভীবাজার তাজমহল টাওয়ারের একজন প্রসাধনী ব্যবসায়ী।

অবৈধভাবে আমদানি করা এসব খালি বোতল নিজেদের অনুমোদনহীন কারখানায় নিয়ে রিফিল করে স্টিকার লাগিয়ে বাজারজাত করতো। যার মধ্যে শিশুদের ব্যবহার্য জনসন বেবি লোশন, বেবি শ্যাম্পু, জনসন পাউডার, ইউনিলিভারের পন্ডস, ফেয়ার অ্যান্ড লাভলীসহ ৩২ ধরনের পণ্যের নকল প্রসাধনী আসল বলে বাজারে বিক্রি করতেন প্রতারক সাইফুদ্দিন।  মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে রাজধানীর চকবাজার থানার মৌলভীবাজারের তাজমহল টাওয়ার ও সোয়ারীঘাটের ৬/১০ চম্পাটুলি লেন এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। চলে রাত ৮টা পর্যন্ত। র‌্যাব-১০ ও বিএসটিআই’র সহযোগিতায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযানের নেতৃত্ব দেন র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারওয়ার আলম।

তিনি বলেন, চকরাজারের মৌলভীবাজারের তাজমহল টাওয়ারের তাকওয়া এন্টারপ্রাইজে অভিযান পরিচালনা করে ৩২ ধরনের বিদেশি বিভিন্ন ব্যান্ডের নকল প্রসাধনী পণ্য পাওয়া যায়। প্রতিষ্ঠানের মালিক সাইফুদ্দিন নিজের অনুমোদনহীন কারখানায় এগুলো তৈরি করতো। এর জন্য সে মিথ্যে ঘোষণা দিয়ে চায়না থেকে এসব প্রসাধনীর বোতল আমদানি করতেন। এরপর প্রতারণার মাধ্যমে এসব পণ্য বাজারে ক্রেতাদের আসল বলে বিক্রি করতেন।  এসব অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাকওয়া প্রতিষ্ঠানের মালিক সাইফুদ্দিন, আব্দুল আলিম নকির, প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার মো. আরমান, শেখ সাউদুল ইসলাম ও খায়ের হোসেনকে দুই বছর করে কারাদণ্ড ও পাঁচ লাখ টাকা করে মোট ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।  অপরদিকে সোয়ারীঘাট এলাকার ৬/১০ চম্পাটুলি লেন এলাকায় নকল কারখানায় অভিযান চালিয়ে কারখানার মালিক মো. বাসারের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম।  তিনি বলেন, বিদেশি প্রসাধনী বিক্রির নামে সাধারণ মানুষের সঙ্গে অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রতারণা করে আসছে। এসব প্রসাধনীর মধ্যে শিশুদের ব্যবহার্য পণ্যই বেশি। এতে শিশুদের ত্বকে নানা রোগ দেখা দেয়। এসব অসাধু ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers