মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১১:৩৩ অপরাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি
ভর্তি চলিতেছ রৌফন রেডিয়ান্ট স্কুলে প্লে গ্রুপ থেকে শুরু। চুলকাটি বাজার, (রুটস বাংলাদেশ) বনিকপাড়া রোড, বাগেরহাট।
সংবাদ শিরোনাম :
নয়ন স্মৃতি নাইট শর্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সৈয়দপুর চ্যাম্পিয়ন আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা পেল র‌্যাবের ঈদ উপহার বাগেরহাটে দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন শেখ তন্ময় এমপি বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে মোংলায় মানববন্ধন বর্ণাঢ্য আয়োজনে রামপালে জাতীয় ভোটার দিবস পালন রামপালে স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করেছে কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন পশুর চ্যানেলে তলা ফেটে দুর্ঘটনাকবলীত কার্গো জাহাজটি এখও ঝুকি মুক্ত নয়, চলছে কয়লা অপসারণ মোংলায় কয়লা নিয়ে পশুর নদীতে কার্গো ডুবি, ১১ নাবিক জীবিত উদ্ধার মোংলা বন্দরের সিবিএ’র কর্মচারী সঘের সাবেক সাঃ সম্পাদক এস এম ফিরোজ সহ ৩ জনের সদস্য পদ বাতিল
সাঁথিয়ায় মাদরাসা শিক্ষার্থীকে নির্যাতনকারী শিক্ষক গ্রেফতার

সাঁথিয়ায় মাদরাসা শিক্ষার্থীকে নির্যাতনকারী শিক্ষক গ্রেফতার

পাবনা প্রতিনিধি

পাবনার সাঁথিয়ায় আসাদুল নামের এক মাদরাসা ছাত্রকে হাত পা বেঁধে বেধড়ক মারধর করে জখমী করার ঘটনায় দুই শিক্ষককে আসামি করে গত সোমবার রাত (১১ সেপ্টেম্বর) থানায় মামলা করেন নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা। নির্যাতনে সহযোগিতা করায় ওই মাদরাসার শিক্ষক শাহাদৎ হোসেন(১৯)কে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে।বগুড়া জেলার সারিয়াকাদি উপজেলার পূর্বধারাবর্ষা গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে সে। নির্যাতনকারী শিক্ষক ইকবাল হোসেন(২২)পলাতক রয়েছে।
থানায় মামলা সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার গৌরীগ্রাম ইউনিয়নের হাড়িয়াকাহন বাইতুল উলুম নুরানী হাফিজিয়া মাদরাসাসংলগ্ন শিবরামপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে হাফেজ বিভাগের শিক্ষার্থী আসাদুল(১০) অসুস্থতার কারণে মাদরাসায় অনুপস্থিত থাকায় বাড়িতে অবস্থান করে। গত ০৩ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই মাদরাসার দুই শিক্ষার্থী সজীব(১৩) ও সিয়াম(১০) কে সঙ্গে করে শিক্ষক ইকবাল হোসেন আসাদুলকে বাড়ি থেকে মাদরাসায় ডেকে আনে। অনুপস্থিত থাকার অপরাধে আসাদুলকে শিক্ষক শাহাদৎ হোসেনের সহযোগিতায় রশি দিয়ে হাত-পা বেঁধে,মাথা টেবিলের নীচে দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে বেত এবং স্টিলের স্কেল দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে জখম করে। এক পর্যায়ে আসাদুল অচেতন হয়ে যায়। এ সময় তাকে কাঁথা দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। আসাদুলের মা শোভা খাতুন খবর পেয়ে মাদরাসায় ছুটে যান। গিয়ে ছেলেকে খুঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে দেখতে পান মাদরাসার কক্ষে হাত,পা বাঁধা অবস্থায় কাঁথা দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। এ সময় তাকে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই দিন রাত ১ টার দিকে সাঁথিয়া উপজলা স্বাস্হ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করে তার পরিবার।নির্যাতিত শিক্ষার্থীর বাবা ভ্যান চালক আনোয়ার হোসেন জানান,আমার ছেলেকে অমানবিকভাবে মারধর করে জখম করার বিষয়টি মাদরাসা কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা চিকিৎসার খরচ বাবদ দুই হাজার টাকা দেয় এবং ন্যায় বিচারের আশ্বাস দিয়ে মামলা করতে নিষেধ করে। ন্যায় বিচার না পেয়ে টাকা ফেরৎ দিয়ে থানায় মামলা করেছি।বর্তমানে ছেলেকে বাড়িতে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।নির্যাতিত শিক্ষার্থীর পরিবারকে থানায় মামলা করতে নিষেধ করার ব্যাপারে মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি আশরাফ আলী বলেন,আমরা ওই শিক্ষককে মাদরাসা থেকে বহিষ্কারের (ইস্তফা) ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। মামলা হলে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যাবে যার কারণে মাদরাসার সুনাম ক্ষুন্ন হবে এবং প্রতিষ্ঠানে ছাত্র ভর্তির ওপর প্রভাব পড়বে।এতে করে ছাত্র পাওয়া যাবে না। শিক্ষার্থীর চিকিৎসা বাবদে খরচ দেওয়া হয়েছে।সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)রফিকুল ইসলাম বলেন,শিক্ষার্থীকে মারধরের ঘটনায় মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষক শাহাদৎ হোসেনকে গত সোমবার রাতে মাদরাসা থেকে গ্রেপ্তার করে মঙ্গলবার (১২ সেপ্টম্বর) জেল হাজতে প্রেরণ করা হয় এবং অপর শিক্ষক ইকবাল হোসেনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

  1. © স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers