বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
বাগেরহাটে প্রতিবন্ধিকে মারপিটের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন রামপালে কাদিরখোল মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪১ তম বার্ষিক ক্রীড়া অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে “উগ্রবাদ প্রতিরোধে ছাত্র, গণমাধ্যমকর্মী ও সুশীল সমাজের ভূমিকা” শীর্ষক দিনব্যাপি সেমিনার অনুষ্ঠিত ফ্রী ফায়ার গেম নিয়ে দ্বন্দ, ভ্যান চালক বন্ধুকে হত্যা করে গ্যারেজ মেকানিক বাগেরহাটে সন্ত্রাস দমন ও আন্তর্জাতিক অপরাধ প্রতিরোধে দিনব্যাপী সেমিনার আওয়ামী লীগ সরকারের নেতৃত্বে দেশে লুটপাটের মহোৎসব চলছে সুন্দরবনে বাঘের আক্রমণে জেলে আহত হওয়ার দু’দিন লোকালয়ে বাঘের গর্জন নির্বাহী প্রকৌশলীর উপর হামলার প্রতিবাদে ফকিরহাটে মানববন্ধন ফকিরহাট খাদ্যগুদামে বিদায়ী ও নবাগত কর্মকর্তাদের সংবর্ধনা ফকিরহাটে কলেজ ছাত্র হত্যার ঘটনায় মামলা,দু’জন আটক
বখাটে রুমানের ভয়ে আতংকে অসহায় পরিবারের দিন কাটছে ”প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন”

বখাটে রুমানের ভয়ে আতংকে অসহায় পরিবারের দিন কাটছে ”প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন”

বরিশাল প্রতিনিধি :

বখাটে রুমানের ভয়ে অসহায় পরিবার। বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড় ইউনিয়ানের পশ্চিম লক্ষনকাঠী গ্রামের মোঃ জামাল সরদারের বাড়ির সীমানা নিয়ে ঝগড়া বাধে ২৮/০১/২০২০ তারিখ বৃহস্পতি বার বিকেল ০৪ টার সময় একই বাড়ির মৃতঃ মোঃ জাহাঙ্গীর সরদারের ছেলে রুমান সরদার ও জাহাঙ্গীরের স্ত্রী রুনা বেগম তার লোকজন নিয়ে। জামাল সরদারের স্ত্রী অজুফা বেগম কে বেধর্ক মারধর করে। জাহাঙ্গীর ছেলে রুমান ঘুষি মেরে অজুফা বেগমের নাক ফাটিয়ে রক্তোত্ত করে । রুমান ও তার মা রুনা বেগম অজুফা কে মাটিতে ফেলে পাড়িয়ে ধরে গলা চেপে শ্বাস রোধ করে মারার চেষ্টা করে। সে সময় অজুফার গলার স্বর্ণের চেইন,নাকফুল ছিনিয়ে নেয় এবং লুটতরাজ করার জন্যে ঘরের দরজা ভাঙ্গার চেষ্টা করে। অজুফা বেগমের শাশুড়ি ও মেয়েদের ডাক চিৎকারে এলাকাবাসী জড়ো হলে। রুমান তার সঙ্গীদের নিয়ে সরে পড়ে অজুফা বেগম কে গৌরনদী থানার আশোকাঠি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় গৌরনদী থানায় অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে । অজুফা বেগম মুঠোফোনে রিপটার কে বলেন স্যার আমি একজন অসহায় নারী। আমার বাড়ির সীমানা নিয়ে প্রায়ই রুমান ও তার মা বোনেরা অযথাই ঝগড়া বাধায়। রুমান নেশাখোর মানুষ প্রতিদিন গভীর রাতে বাড়ি ফিরে। তার অনেক বড় বড় আত্মীয় স্বজন আছে। সব সময় দলবল নিয়ে চলে । মাঝে মধ্যে গভীর রাতে এসে আমাদের ঘরের দরজা ও জানালায় লাথি দিয়ে ভয় দেখায়। আমার ঘরে চার টি মেয়ে কোন ছেলে নেই স্বামী অসুস্থ মানুষ। ঠিকমত কাজ করতে পারেনা সংসার চলে। নিজে ঘরে বসে টেইলরিং কাজ করি ও আত্মীয় সজনের সহযোগীতায়। শশুর শাশুড়ি তারাও অসুস্থ সংসার চলে অভাব অনটের মধ্যে দিয়ে। তার উপর ওদের অসহনীয় অত্যাচার আর ভালো লাগেনা। ওরা চায় আমরা এ বাড়ি ঘর ছেড়ে দিয়ে কোথাও চলেযাই। এর আগেও একদিন আমাকে ও আমার মেয়েকে রুমান ধার আলো বটি নিয়ে ধাওয়া করে আসে। আমি ভয়ে চুপ করে সরে যাই। আর গালাগালি ভয়ভীতি তো সব সময় দেখাইতেই থাকে। ওদের অত্যাচার শয্যো করতে না পেরে নিজের পরিবারের নিরাপত্তার কারনে। এবার থানা পুলিশ কে জানিয়েছি। এ ঘটনার যানতে গৌরনদী থানায় যোগাযোগ করে জানাযায়। অজুফা বেগমের অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers