বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০২:৪৪ পূর্বাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি
ভর্তি চলিতেছ রৌফন রেডিয়ান্ট স্কুলে প্লে গ্রুপ থেকে শুরু। চুলকাটি বাজার, (রুটস বাংলাদেশ) বনিকপাড়া রোড, বাগেরহাট।
সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের বাগেরহাট জেলা-কমিটি অনুমোদন নয়ন স্মৃতি নাইট শর্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সৈয়দপুর চ্যাম্পিয়ন আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা পেল র‌্যাবের ঈদ উপহার বাগেরহাটে দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন শেখ তন্ময় এমপি বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে মোংলায় মানববন্ধন বর্ণাঢ্য আয়োজনে রামপালে জাতীয় ভোটার দিবস পালন রামপালে স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করেছে কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন পশুর চ্যানেলে তলা ফেটে দুর্ঘটনাকবলীত কার্গো জাহাজটি এখও ঝুকি মুক্ত নয়, চলছে কয়লা অপসারণ মোংলায় কয়লা নিয়ে পশুর নদীতে কার্গো ডুবি, ১১ নাবিক জীবিত উদ্ধার
বিস্কুট খাওয়ায় শিশু শ্রমিককে গরম রড দিয়ে নির্যাতন

বিস্কুট খাওয়ায় শিশু শ্রমিককে গরম রড দিয়ে নির্যাতন

বিস্কুট খাওয়ার দায়ে বেকারিতে এক শিশু শ্রমিককে লোহার রড গরম করে আঘাত দিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতনের ওই ছবি ভাইরাল হলে স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ছুটে যান বেকারিতে।

ঘটনাটি ঘটে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় ইসলামিয়া বেকারিতে। নির্যাতনের শিকার ওই শিশুর নাম জুনাইদ (১২)। তার বাড়ি কুমিল্লা শহরে। মঙ্গলবার সকালে বেকারির ওই শিশু শ্রমিক স্থানীয় কয়েকজনকে নির্যাতনের বিষয়টি জানায়।শিশু জুনাইদ সাংবাদিকদের জানায়, বেশ কিছু দিন ধরে বেকারিতে কাজ করে সে। গত তিন দিন আগে একটি বিস্কুট এবং একটি ডিম খায় সে। এই কারণে বেকারির মিস্ত্রি সাবু এবং মালিক বায়জিদ লোহার রড গরম করে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে।শিশু আরও জানায়, গত তিন মাসে ধরে তার উপর নির্যাতন চালানো হয়। প্রতিবাদ করলে বেকারির চুলায় ফেলে দিয়ে পুড়িয়ে মেরে ফেলার হুমকি দেয়া হয়। বেকারিতে রান্না করার দায়িত্বে থাকা নাজমা বেগম জানান, প্রায় সময় জুনাইদসহ এখানে কর্মরত অন্য শিশু শ্রমিকদের উপর অমানুষিক নির্যাতন করা হয়। বিষয়টি আমি মালিক বায়েজিদকে বেশ কয়েকবার জানিয়েছি কিন্তু আমার কথা তিনি কোন আমলে নেয়নি। এদিকে অভিযুক্ত ইসলামিয়া বেকারির মালিক বায়েজিদ আহাম্মদ বলেন, ওই শিশুটিকে আমি মারিনি। বেকারির মিস্ত্রি সাবু মেরেছে। আমি পরে বিষয়টি শুনেছি।

নির্যাতনের খবর পেয়ে আখাউড়া উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর-ই আলম এবং আখাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ রসুল আহাম্মেদ নিজামী ঘটনাস্থলে ছুটে যান। বেকারিতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য বানানোর অপরাধে ভোক্তা অধিকার আইনে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। আর বেকারিটি সিলগালা এবং মালিক বায়েজিদসহ অন্যদের থানায় নিয়ে আসা হয়। এই বিষয়ে আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর-ই আলম সাংবাদিকদের জানান, শিশু শ্রমিক দিয়ে কাজ করানোর অপরাধে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়ার পর্যন্ত ওই বেকারি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

  1. © স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers