বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০৪ পূর্বাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি
ভর্তি চলিতেছ রৌফন রেডিয়ান্ট স্কুলে প্লে গ্রুপ থেকে শুরু। চুলকাটি বাজার, (রুটস বাংলাদেশ) বনিকপাড়া রোড, বাগেরহাট।
সংবাদ শিরোনাম :
নয়ন স্মৃতি নাইট শর্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সৈয়দপুর চ্যাম্পিয়ন আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা পেল র‌্যাবের ঈদ উপহার বাগেরহাটে দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন শেখ তন্ময় এমপি বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে মোংলায় মানববন্ধন বর্ণাঢ্য আয়োজনে রামপালে জাতীয় ভোটার দিবস পালন রামপালে স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করেছে কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন পশুর চ্যানেলে তলা ফেটে দুর্ঘটনাকবলীত কার্গো জাহাজটি এখও ঝুকি মুক্ত নয়, চলছে কয়লা অপসারণ মোংলায় কয়লা নিয়ে পশুর নদীতে কার্গো ডুবি, ১১ নাবিক জীবিত উদ্ধার মোংলা বন্দরের সিবিএ’র কর্মচারী সঘের সাবেক সাঃ সম্পাদক এস এম ফিরোজ সহ ৩ জনের সদস্য পদ বাতিল
মোংলা শোক সভায় খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক: জিয়াউর রহমানের পরামর্শেই বঙ্গবন্ধু পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে

মোংলা শোক সভায় খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক: জিয়াউর রহমানের পরামর্শেই বঙ্গবন্ধু পরিবারকে হত্যা করা হয়েছে

 

স্টাফ রিপোর্টার, মোংলা

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আঃ খালেক বলেছেন, জিয়াউর রহমানের ষড়যন্তেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে। তার ইন্দোনে ও কু-পরামর্শে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়। তার ইচ্ছা ছিল, বাংলার মাটিতে যেন বঙ্গবন্ধু পরিবারের কোন চিহ্ণ না থাকে। বঙ্গবন্ধ ক্ষমতায় আসার পর দীর্ঘ সাড়ে ৩ বছর তৎকালীন বিপদগামী সেনা সদস্যদের নিয়ে তিনি ষড়যন্ত্র করে বঙ্গবন্ধ পরিবারের উপর মিশন চালিয়েছে জিয়াউর রহমান। শুক্রবার ১৮ আগষ্ট বিকালে এক শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধকে হত্যার পর তিনি সেনা প্রধান হয় এবং পরে সে এ দেশের ক্ষমতা দখল করেছে। তখন বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের খুনিদের জেল খানায় না দিয়ে বঙ্গ বভনে তাদের স্বীকৃতি দিয়ে মস্ত্রীত্ব ও রাস্ট্রদুত হিসেবে নিযুক্ত করেছে জিয়াউর রহমান বলে মন্তব্য করেন তিনি।

শুক্রবার বিকালে মোংলা দলীয় কার্যালয় এক শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয় খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক। মোংলা পোর্ট পৌর মেয়র শেখ আঃ রহমান’র সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক অধ্যক্ষ সুনিল কুমার বিশ্বাস, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার হাই, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, আওয়ামী নেতা শেখ আঃ সালাম, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মুশফিকুর রহমান তুষার, থানার ওসি মোহাম্মাদ সাসুদ্দিন, ইউপি চেয়ারম্যানগন সহ আওয়ামী দলীয় নেতা কর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথির বকতব্যে তিনি আরো বলেন, বিএনপির সাশনামলে আমলে মোংলা বন্দর মৃত বন্দরে পরিনত ছিল। জাহাজ আসতো না, শ্রমিকদের কাজ ছিলো না। অনাহারে অর্ধাহারে এ এলাকার মানুষের দিন চলতো। বর্তমান সরকার শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর মোংলা বন্দর সহ দক্ষিন-পশ্চিমাঞ্চল এখন শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। মোংলা বন্দর এখন বিশ্বের বানিজ্যিক বাজারে একটি লাভ জনক ব্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে।জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সকল স্বপ্ন পূরণ করছেন তারই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আছে বলেই দেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের জীবনমান উন্নয়ন হচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়নের একমাত্র ভরসাস্থল দেশরত্ন শেখ হাসিনা। বিএনপি নামক গণবিচ্ছিন্ন দলটি জনরোসে এখন বিলুপ্তির পথে। বিএনপি ভাল করেই জানে, তারা নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসবে না। তাই তারা মাঝে মধ্যেই নতুন ফর্মুলা নিয়ে হাজির হয়। ক্ষমতায় আসতে হলে সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনের অধীনেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে হবে। সেই নির্বাচনে পেট্টোল বোমা মেরে মানুষ হত্যাকারী, লুটেরা বিএনপি আর কোনো দিন এদেশের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসবে না।
দেশের অনুন্নত এলাকা আজ উন্নত শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার জন্যে। তার নেতৃত্বে দেশের প্রত্যেকটি অঞ্চল অন্ধকার থেকে আলোর মুখ দেখেছে। দেশরত্ব শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। তার বলিষ্ঠ নেতৃত্বেই দেশ আজ মধ্যম আয়ের দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হয়েছে। আজ বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশ, আমরা এই কথাটি গর্বের সঙ্গে বলতে পারি। তাই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকাকে ভোট দিয়ে আবারও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিজয়ী করতে হবে। কারণ নৌকার বিকল্প আর কিছুতেই পাওয়া যাবে না। উন্নয়ন মানেই নৌকা, নৌকা মানেই উন্নয়ন। তাই দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে শেখ হাসিনাই শেষ ঠিকানা। আমার বিশ্বাস, রামপাল-মোংলার মানুষ কখনো বঙ্গবন্ধু, মহান মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশ ও জননেত্রী শেখ হাসিনা কখনো কারো সাথে আপোস করে নাই, আগামীতেও করবে না।

তাই দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী ও আগামী সংসদ নির্বাচানে পুনরায় নৌকাকে বিজয় করে শেখ হাসিাকে প্রধানমন্ত্রী করতে এক জোট হয়ে কাজ করার আহবান জানান সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

  1. © স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers