শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন

বিশেষ বিজ্ঞপ্তি
ভর্তি চলিতেছ রৌফন রেডিয়ান্ট স্কুলে প্লে গ্রুপ থেকে শুরু। চুলকাটি বাজার, (রুটস বাংলাদেশ) বনিকপাড়া রোড, বাগেরহাট।
সংবাদ শিরোনাম :
জাতীয় সাংবাদিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের বাগেরহাট জেলা-কমিটি অনুমোদন নয়ন স্মৃতি নাইট শর্ট ক্রিকেট টুর্নামেন্টে সৈয়দপুর চ্যাম্পিয়ন আত্মসমর্পণকারী দস্যুরা পেল র‌্যাবের ঈদ উপহার বাগেরহাটে দুস্থ ও অসহায়দের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেছেন শেখ তন্ময় এমপি বুয়েটে ছাত্র রাজনীতির দাবিতে মোংলায় মানববন্ধন বর্ণাঢ্য আয়োজনে রামপালে জাতীয় ভোটার দিবস পালন রামপালে স্থানীয় সরকার দিবস উদযাপন  বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা  প্রয়োজনীয় ঔষধ সামগ্রী বিতরণ করেছে কোস্টগার্ড পশ্চিম জোন পশুর চ্যানেলে তলা ফেটে দুর্ঘটনাকবলীত কার্গো জাহাজটি এখও ঝুকি মুক্ত নয়, চলছে কয়লা অপসারণ মোংলায় কয়লা নিয়ে পশুর নদীতে কার্গো ডুবি, ১১ নাবিক জীবিত উদ্ধার
হাকিমপুর শিকদার বাড়িতে এ বছর বড় আকারে পূজা হচ্ছে না

হাকিমপুর শিকদার বাড়িতে এ বছর বড় আকারে পূজা হচ্ছে না

চুলকাঠি রিপোর্ট :  বাগেরহাট  সদর উপজেলার হাকিমপুর শিকদার বাড়িতে এ বছর বড় আকারের মুল মন্ডপে পূজা হচ্ছে না। শুধুমাত্র গড প্রতিমা বানিয়ে সীমিত আকারে পূজা উদযাপন করা হবে।     যার কারনে পূজাপ্রেমী ভক্তরা আনন্দ উৎসব থেকে  বঞ্চিত হচ্ছেন এ বছর শিকদার বাড়ির দূর্গা পূূূজা। এশিয়া মহাদেশের সর্ববৃহৎ পূজা হিসাবে খ্যাত বাগেরহাটের হাকিমপুর শিকদার বাড়ি শারদীয় দূর্গা পূজা।শিল্পপতি লিটন শিকদারের পিতা স্বর্গীয় দুলাল শিকদারের উদ্যোগে ২০০১ সালে ২৫১ টি প্রতিমার মধ্য দিয়ে শিকদার বাড়ির পূজা শুরু হয়। শৈল্পিক নৈপূন্য ও বৈচিত্রতারকা রনে দক্ষিণাঞ্চলের আকর্ষনীয় দূর্গা মন্ডপে পরিণত হয়। বিপুল লোকের সমাগম ও দেশ-বিদেশের বিভিন্ন লোকের আগমনে এই পূজা মন্ডপে উপচে পড়া ভীড় হতে থাকে। পূজা মন্ডপ কর্তৃপক্ষ ধর্মানুরাগী ভক্তদের আরও মনাকর্ষন করতে প্রতি বছর প্রতিমার সংখ্যা বৃদ্ধি ও তার সাথে বৈচিত্র ও আকর্ষনীয় সন্নিবেশ ঘটান। ফলে অল্প সময়ের মধ্যে শুধু বাংলাদেশ নয়, দক্ষিণ এশিয়া মহাদেশের মধ্যে এক নামে পরিচিত হয়ে ওঠে। টিভি-মিডিয়া, পত্র-পত্রিকা সহ দেশ-বিদেশের আকর্ষন হয়ে ওঠে এপূজা মন্ডপ। ২০১৯ সালে এ মন্ডপের প্রতিমার সংখ্যা ছিল ৮০১ টি। মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী সহ বিভিন্ন ডিফেন্সের প্রধানদের আগমন ঘটে এ মন্ডপে। পূজার উৎসব শেষ হতে না হতেই শুরু হিয়ে যায় পরবর্তী বছরের প্রস্তুতি। প্রতিমার সাজ-সারঞ্জামের উপকরণ ক্রয় করা হয় দেশের বাইরে থেকে। সামাজিক প্রতিমা সহ পূরাণিক কাহিনী স্থান পায় এ মন্ডপে। প্রতি বছর পূজায় লক্ষ লক্ষ দর্শনার্থীদের আগমন ঘটে। শুধু পূজা মন্ডপ নয়, পূজার সময়ে খুলনা-মংলা মহাসড়কের ৪/৫ কিঃমিঃ পর্যন্ত লোকজনের এতো ভীড় থাকে সাইকেল-মোটর সাইকেল পর্যন্ত চালানো যায় না। পূজা শুরুর এক-দেড় মাস আগে থেকে বিভিন্ন স্থানের দর্শনার্থীরা এ মন্ডপ পরিদর্শনে ভীড় জমায়। এ বছর কোন

দর্শনার্থীদের দেখা যাচ্ছে না। আবার অন্যান্য বছর এ সময়ে প্রশাসনের মধ্যে পূজা নিয়ে যে ব্যস্ততা দেখা যায়- এ বছর তা পরিলক্ষিত হচ্ছেনা। কভিড-১৯ ( করোনা ভাইরাস) এর কারনে এ বছর শিকদার বাড়ির পূজা হচ্ছে কিনা -তা জানতে চাচ্ছেন বহু মানুষ। করোনার কারনে এ বছর শিকদার বাড়ির পূজা বড় আকারে হচ্ছে না। শুধুমাত্র মূল ষ্টেজের প্রতিমা নিয়েই হবে এ মন্ডপের এ বছরের পূজা। সংক্রামিত করোনার প্রভাব এ মন্ডপে ঘটাতে দিবেন না কর্তৃপক্ষ। পূজার পৃষ্ঠপোষক শিল্পপতি লিটন শিকদার চুলকাঠি ২৪ প্রতিনিধিকে  জানান, করোনার পরিস্থিতির  কারনে এ বছর বড় আকারে পূজা হচ্ছে না।তিনি এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে বলেন, পূূূজাপ্রেমী ভক্ত ও দর্শনার্থীদের বিনয়ের সাথে না আসার জন্য অনুরোধ করেছেন।  বিপুল সংখ্যক লোকের সমাগম এড়াতে এ বছরের এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে দর্শনার্থীদের সীমিত আকারে প্রবেশ করানো হবে।শুধুমাত্র শিকদার বাড়ি পূজা নয়, চুলকাঠি বনিকপাড়া দুর্গা মন্দির সহ অধিকাংশ মন্ডপে পূজার আয়োজন ছোট করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

  1. © স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২১, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers