সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০২:৩৯ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ

আমাদের চুলকাঠি ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন chulkati24@gmail.com এই ই-মেইলে ।

শিরোনাম :
১০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে চুলকাঠি বাজার পাবলিক টয়লেট

১০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে চুলকাঠি বাজার পাবলিক টয়লেট

চুলকাঠি ডেস্ক :১০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত বাগেররহাট সদর উপজেলার চুলকাঠি বাজারের টয়লেটের কাজ শেষ করার জন্য ঠিকাদারের সময় বাড়ল আরও ৬ মাস। করোনার কারণে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত এই সময়ের মধ্যেই পাবলিক টয়লেটের কাজটি শেষ হচ্ছে বলে জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অফিসের প্রত্যাশা।সূত্রে প্রকাশ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীনে চুলকাঠি বাজারে এই পাবলিক টয়লেটটি নির্মিত হচ্ছে। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রটি জানায়, বাজারের পাবলিট টয়লেটটি নির্মাণ করার জন্য ১০ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ রয়েছে। সেভাবে টেন্ডারও সম্পন্ন হয়েছে নির্ধারিত সময়ে। কাজটি নির্ধারিত সময়ে শেষ করার জন্য বাগেরহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন একাধিকবার বাজারে এসে বাজার কমিটি ও ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলেছেন।বাগেরহাট ০২ আসনের সংসদ সদস্য শেখ তন্ময় নিজেও এসেছেন কয়েক দফা। প্রথম দিকে বাজারের টয়লেটটি স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণ নিয়ে কিছুটা সমস্যা থাকলে শেষমেষ জায়গাটি চুড়ান্ত হয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরের বরাদ্ধকৃত টাকায় কাজটি সম্পন্ন হচ্ছে। জুন’ ২০২০ এর মধ্যে কাজটি সম্পন্ন হবার কথা। একদিকে কাজ শুরু হয়েছে দেরিতে। অন্যদিকে করোনার কারণে যাতায়াত ও যোগাযোগ ব্যবস্থাও ছিল সীমিত। আবার বর্ষার কারণে কাজ চলছে থেমে থেমে। ইতোমধ্যে পাবলিক টয়লেটটির ছাদের কাজ শেষ হয়েছে সপ্তাহ খানেক আগে। বাজার কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসী মনে করছে যেভাবে কাজ করছে তাতে অল্বপদিনেই বাকি কাজ শেষ হয়ে যাবে। ঠিকাদারের পক্ষ থেকেও একই কথা বলা হয়েছে।উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সরদার নাসির উদ্দিন বাগেরহাট টুয়েন্টি ফোরকে জানান, এমপি শেখ তন্ময় চুলকাঠি বাজারে এ কাজটি বরাদ্ধ দিয়েছেন। এটি বাস্তবায়ন হলে চুলকাঠি বাজারের ব্যবসায়ীদের টয়লেট সমস্যার সমাধান হবে। বাজারের বিভিন্ন সমস্যা সমাধান ও বাজারের উন্নয়নমূলক বিভিন্ন কাজ পর্যায়ক্রমে হবে বলে তিনি জানান।জনস্বাস্থ্য প্রকৌশীল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলাম বাগেরহাট টুয়েন্টি ফোরকে জানান, জুন’ ২০২০ এর মধ্যে কাজটি শেষ করার কথা থাকলেও করোনার কারণে সময় বৃদ্ধি হয়েছে। ফলে ডিসেম্বর’ ২০২০ এর মধ্যে পাবলিক টয়লেটটির কাজ শেষ করতে হবে। কাজ যেভাবে চলছে তাতে বৃদ্ধিপ্রাপ্ত নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই কাজটি শেষ হয়ে যাবে বলে তার প্রত্যাশা।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২০২০২, www.chulkati24.com

কারিগরি সহায়তায়ঃ-SB Computers